স্টাফ করেসপন্ডেন্ট।।ক্যাপিটালমার্কেট২৪.কম

ডিসেম্বর ১৪, ২০২০

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি এবং বিএইচবিএফসি’র ওয়েবিনারে ড.সেলিম উদ্দিন

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-কর্মচারীদের ব্যাংকিং ব্যবস্থার মাধ্যমে গৃহ নির্মাণ ঋণ প্রদানের লক্ষ্যে বাংলাদেশ সরকারের অর্থ মন্ত্রণালয়, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় এবং বাংলাদেশ হাউস বিল্ডিং ফাইনান্স কর্পোরেশন (বিএইচবিএফসি) এর মধ্যে এক সমঝোতা স্মারক (গঙট) স্বাক্ষরিত হয়। উক্ত সমঝোতা স্মারক বাস্তবায়নের জন্য চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি এবং বাংলাদেশ হাউস বিল্ডিং ফাইনান্স কর্পোরেশনের যৌথ উদ্যোগে ১২-১২-২০২০ তারিখ  সন্ধ্যা ৬.০০ ঘটিকায় এক ওয়েবিনার অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত ওয়েবিনারে প্রধান অতিথি হিসেবে সংযুক্ত ছিলেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের মাননীয় উপাচার্য প্রফেসর ড.শিরীন আখতার এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিএইচবিএফসি’র চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. মোঃ সেলিম উদ্দিন, এফসিএ, এফসিএমএ। অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ব্যবস্থাপনা পরিচালক (অতিঃ দায়িত্ব) জনাব মোহাম্মদ শাহজাহান। উক্ত অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতির সভাপতি প্রফেসর মোঃ এমদাদুল হক এবং পুরো অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক জনাব মঞ্জুরুল আলম। অনুষ্ঠানটিতে বিএইচবিএফসির পক্ষে সার্বিক বিষয়ে পেপার প্রেজেন্টেশন করেন মহাব্যবস্থাপক জনাব চানু গোপাল ঘোষ এবং প্যানেল সদস্য হিসেবে সকল মহাব্যবস্থাপক উপস্থিত ছিলেন।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন বিএইচবিএফসি’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক (অতিঃ দায়িত্ব) জনাব মোহাম্মদ শাহজাহান। তিনি চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-কর্মচারীকে আন্তরিক সেবা প্রদানে বিএইচবিএফসি সদা প্রস্তুত মর্মে তাঁর মতামত ব্যক্ত করেন।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে বিএইচবিএফসি’র চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. সেলিম উদ্দিন বলেন ১৯৫২ সালে গৃহায়ন খাতে দীর্ঘ মেয়াদী ঋণ সহায়তা প্রদানে পথিকৃৎ প্রতিষ্ঠান হিসেবে পথচলা শুরু করে “হাউস বিল্ডিং ফাইনান্স কর্পোরেশন”। স্বাধীনতার পর যুদ্ধ বিধ্বস্ত বাংলাদেশের মানুষের আবাসন সমস্যা সমাধানকল্পে বঙ্গবন্ধু বিএইচবিএফসিকে পুর্নগঠন করেন। স্বল্প ও সরল সুদ এবং দীর্ঘমেয়াদী ঋণ সুবিধা এবং দক্ষ জনবেলর কারণে গৃহায়ন খাতে মধ্যবিত্ত ও নি¤œমধ্যবিত্ত এবং সরকারী চাকুরীজীবীদের জন্য বিএইচবিএফসি নির্ভরশীল প্রতিষ্ঠান হিসেবে সকলের আস্থা অর্জনে সক্ষম হয়েছে। বিএইচবিএফসিতে বিগত ৩ (তিন) বছরে ডিজিটাইজেশনে অভুতপূর্ব অগ্রগতি সাধিত হয়েছে। মাঠ পর্যায়ে অফিসগুলো ঢেলে সাজানো হয়েছে এবং অধিকাংশ ক্ষেত্রে জবাবদিহিতা নিশ্চিত করা সম্ভব হয়েছে। এছাড়া সরকারী বিভিন্ন মানদন্ডে প্রতিষ্ঠানটি তার পারফরমেন্স দেখাতে সক্ষম হয়েছে। তিনি আশা করেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রায় ৩০০০ শিক্ষক-কর্মচারীকে কাঙ্খিত সেবা প্রদানে বিএইচবিএফসি বদ্ধপরিকর। সেলক্ষ্যে ঋণ মঞ্জুরী ও বিতরণ সংক্রান্ত পুরো পক্রিয়াটি খুব দ্রুত সময়ের জন্য সম্পন্ন করার জন্য চট্টগ্রাম প্রধান শাখা অফিসে ওয়ান স্টপ সার্ভিস চালু এবং স্বতন্ত্র বুথ চালু করা হবে। এছাড়া জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর স্মৃতি বিজড়িত ৩২ নং বাড়ী এবং মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সুদাসদন এর বাড়ীটি বিএইচবিএফসি’র ঋণে নির্মিত হওয়ায় বিএইচবিএফসি পরিবারের একজন সদস্য হিসাবে তিনি গর্ববোধ করেন।

প্রধান অতিথি প্রফেসর ড. শীরিন আক্তার বলেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভিশন ২০২১ ও ২০৪১ এবং ডেল্টা প্ল্যান বাস্তবায়নে সবার জন্য আবাসন নিশ্চিত করা প্রয়োজন। ব্যাংকিং চ্যানেলের মাধ্যমে শিক্ষক-কর্মচারীবৃন্দ মানসম্মত বাসস্থানের ব্যবস্থা করতে সরকারে এই উদ্যোগকে সাধুবাদ জানান। তিনি আশা করেন এই সমঝোতা স্মারকের মাধ্যমে শিক্ষক-কর্মচারীদের মানসম্মত বাসস্থানের ব্যবস্থা সম্ভব হবে।