মিতালী বৈরাগী

মার্চ ১৫, ২০১৮

পনের মার্চ

মনে পড়ে সেই স্বপ্নের পনের মার্চ,
চিরদিন তুমি রবে হৃদে ঘোর নেশা!
নিয়ে যাও বারবার ভুলিয়ে ভোলায়।
কেমনে ভুলি তোমায় ফাগুন রাজ,
ঝলসানো অন্তর জ্বলেপুড়ে খাঁক!
মনোমুগ্ধ মোহ বয় নিশি দিনমান।
কি করে ভুলি তোমায় হে ফাল্গুন,
আবীর রাঙা নবীন প্রণয় ডোর!
মন কারলো প্রাণ বাধলো নব বসন্ত,
মনে পড়ে আগুন মাখা ফাগুন শ্রী!
জীবন ক্রান্তিলগ্নে স্মৃতি ভীর জমে।
অবেলায় সাঙ্গ হলো খেলাঘর খানি,
নিষ্ঠুর নির্দয় বড় ই কঠোর অসময়!
ডাগর নয়নে ঝরে অঝোর বৃষ্টিরা।
কলম থেমে যায় হাত পা অসাড়,
হৃদ স্পন্দন থমকে, তড়িৎ প্রবাহে!
বক্ষে বরফ জমাট নীল বেদনায়,
কণ্ঠনালী নীলাভ হেমলক বেষ্টনী!
ফুসফুস যন্ত্রনায় রক্তাভ রুদ্ধশ্বাস।
মনে পড়ে চির নতুন পনের মার্চ,
শেষ নাই ক্ষয় নাই অক্ষয় অম্লান!
আঁধারের হাতছানি ক্লান্তএপথিক,
অস্ফুট কান্না শিক্ত আঁখি হাসিমুখ।
তুমি চির যুবক চির নবীন ফাগুন,
আগুন ঝরা মার্চ তুমি ব্যথার কান্না!
মনে পড়ে স্বপ্নীন ফাগুন ১৫ মার্চ।