স্টাফ করেসপন্ডেন্ট ।।ক্যাপিটালমাকের্ট২৪.কম

ফেব্রুয়ারি ১৭, ২০১৮

বাংলাদেশ-কসোভোর মধ্যে কূটনীতি সম্পর্ক চালু

ঢাকা: বাংলাদেশ ও ইউরোপীয় রাষ্ট্র কসোভোর মধ্যে আনুষ্ঠানিক কূটনৈতিক সম্পর্ক চালু করতে যৌথ বিবৃতিতে স্বাক্ষর করেছে উভয় দেশ।শনিবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) নিউইয়র্কস্থ বাংলাদেশ স্থায়ী মিশন এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানায়। জাতিসংঘে নিযুক্ত বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি রাষ্ট্রদূত মাসুদ বিন মোমেন ও নিউইয়র্কস্থ কসোভোর কনসাল জেনারেল রাষ্ট্রদূত টেউটা সাহাতকাইজা স্ব স্ব দেশের সরকারের পক্ষে যৌথ বিবৃতিতে সই করেনরাষ্ট্রদূত মাসুদ বিন মোমেন ও কসোভোর কনসাল জেনারেল রাষ্ট্রদূত টেউটা সাহাতকাইজা সই করছেন। গত বছরের ২৭ ফেব্রুয়ারি ইউরোপীয় রাষ্ট্র কসোভোকে আনুষ্ঠানিক স্বীকৃতি দেয় বাংলাদেশ। এর আগে ১১৩টি দেশ কসোভোকে স্বীকৃতি দেয়।

অর্গানাইজেশন অব ইসলামিক কো-অপারেশনের (ওআইসি) ৫৬ দেশের মধ্যে বাংলাদেশ ৩৭তম দেশ হিসেবে রাষ্ট্রটিকে স্বীকৃতি দিয়েছে। সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদের সম্মেলন কক্ষে প্রধানমন্ত্রীর সভাপতিতে মন্ত্রিসভার বৈঠকে কসোভোকে স্বীকৃতি দেওয়া হয়।যৌথ বিবৃতিতে স্বাক্ষর শেষে এক যৌথ প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, বন্ধুত্বের সূদৃঢ় সম্পর্ক, পারস্পরিক সহযোগিতা এবং আন্তর্জাতিক শান্তি ও নিরাপত্তা রক্ষার ক্ষেত্রে অবদান রাখতে উভয় দেশ প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।

জাতীয় সার্বভৌমত্বের প্রতি পারস্পরিক শ্রদ্ধা ও আঞ্চলিক সংহতি বজায় রাখা, অন্য রাষ্ট্রের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে হস্তক্ষেপ না করাসহ জাতিসংঘের নীতিমালা এবং আন্তর্জাতিক আইনসমূহের প্রতি উভয় দেশ অঙ্গীকার পুনর্ব্যক্ত করে।গত বছরের ফেব্রুয়ারিতে বাংলাদেশ কসোভোকে সরকারি স্বীকৃতি দেয়। এছাড়া গত সেপ্টেম্বরে অনুষ্ঠিত জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৭২তম অধিবেশন চলাকালে কসোভোর রাষ্ট্রপতি হাসিম থাচির সঙ্গে দ্বি-পক্ষীয় বৈঠক করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।কসোভোতে স্বাধীনতা ঘোষণার ১০ বছর পূর্তি উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম অংশ নেবেন।